শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০২:৩৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি....
“সরকারের দিক-নির্দেশনা মেনে চলি, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করি।” অনলাইন নিউজ পোর্টাল “আজকের দিগন্ত ডট কম” এর পক্ষ থেকে আপনাকে জানাচ্ছি স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে এখনই ভিজিট করুন “আজকের দিগন্ত ডট কম” (www.ajkerdiganta.com) । বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের জন্য পরিশ্রমী, মেধাবী এবং সাহসী প্রতিনিধি আবশ্যক, নিউজ ও সিভি পাঠানোর ঠিকানাঃ-- ajkerdiganta@gmail.com // “ধুমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, আসুন আমরা মাদক’কে না বলি”
সংবাদ শিরোনাম....
ঝালকাঠিতে ধ্রুবতারা’র উদ্যোগে যুব সম্মেলন-২০২২ অনুষ্ঠিত সাটুরিয়ায় নবনির্বাচিত মানিকগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য রাজ্জাক হোসাইন রাজ কে সংবর্ধনা বীরগঞ্জে সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষ্যে র‌্যালী ও আলোচনা সভা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা শিশুদের জীবন গড়ার কাঠামো তৈরি করে দেয় — তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বীরগঞ্জে দিনব্যাপী কাব হলিডে ক্যাম্প অনুষ্ঠিত ১৫ বছর পর হতে যাচ্ছে নান্দাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন আশুলিয়ায় ধনাইদ এলাকায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন শ্রীপুরে মাওনা চৌরাস্তায় ব্যবসায়ীদের সাথে স্থানীয় সাংসদের মতবিনিময় ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণ কাজে শুভ উদ্বোধন করলেন ”মাননীয় প্রধানমন্ত্রী” খুলনা বিভাগের পাঁচজন শ্রেষ্ঠ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান

শত বছর পার হলেও দাঁড়িয়ে আছে বালিয়াটী জমিদার বাড়ি

শত বছর পার হলেও দাঁড়িয়ে আছে বালিয়াটী জমিদার বাড়ি

 

মানিকগঞ্জ (সাটুরিয়া) থেকে মোঃ আবুবকর সিদ্দিকঃ বালিয়াটি জমিদার বাড়ি উনিশ শতকের স্থাপত্য কৌশলের একটি অন্যতম নিদর্শন বালিয়াটী জমিদার বাড়ি । প্রায় দুশ’ বছরের পুরাতন জমিদার বাড়িটি ইতিহাস-ঐতিহ্যের সাক্ষী হয়ে দাঁড়িয়ে আছে।

ইতিহাসের বিরল সাক্ষী বালিয়াটী জমিদার বাড়িটি তৎকালীন জমিদারদের আভিজাত্যেরই বহিঃপ্রকাশ। কারুকার্যখচিত মনোমুগ্ধকর প্রতিটি ভবনের দেয়াল দেখলেই বোঝা যায় যে, তৎকালীন জমিদাররা কতটুকু সৌন্দর্য প্রিয় ও রুচিশীল ছিলেন। মোট ৭ টি স্থাপনা নিয়ে বালিয়াটি জমিদার বাড়ি অবস্থিত। স্হানীয় সূএে জানা যায় জমিদার বাড়িটি জমিদার পরিবারের বিভিন্ন উওরাধিকার কর্তৃক বিভিন্ন সময়ে স্থাপিত হয়েছিল। যা উনিশ শতকে নির্মিত ২০ একরের চেয়ে বেশি জায়গা জুড়ে অবস্থিত। এর সুউচ্চ ভবন, দৃষ্টি নন্দন বিশাল দিঘি, ধ্বংসাবশেষ পুকুর ঘাটলা আজো সৌন্দর্যের আভাস ফুটিয়ে তোলে।

জমিদার বাড়ির প্রবেশ মুখে রয়েছে বিশাল ৪ টি সিংহদ্বার, যা পেরোলেই খোলা চত্বর। তারপরই রয়েছে জমিদার বাড়ির মূল ভবন। জমিদার বাড়ির আঙ্গিনায় রয়েছে চারটি বিশাল ভবন, বন্দীশালা, গোলাঘর, রংমহল, দরবার হল, অন্দর মহল । বাড়ির সামনে দু’ঘাটলা বিশিষ্ট বিশাল পুকুর। সদর ঘাটলায় জমিদার রাণী আর উল্টো ঘাটে মহিলা কর্মচারীরা স্নান করতেন। বাড়ির ভেতরে পুকুরের উল্টোদিকে রয়েছে সারিবদ্ধ প্রায় ৩০টি টয়লেট। প্রাসাদ তৈরি করেই ক্ষান্ত ছিলেন না জমিদাররা। এ প্রাসাদের পাশেই জমিদার বাবুর ভাগ্নে ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগরের নামে “ঈশ্বর চন্দ্র বিদ্যাসাগর উচ্চ বিদ্যালয়” প্রতিষ্ঠা তাদের আর এক নিদর্শন। এখানেই শেষ নয় রাজধানী ঢাকাতে “জগন্নাথ বিশ্বদ্যিালয়” আর হল নির্মাণ করেছিল জমিদার পিতা জগন্নাথের নামে।

এ জমিদার বাড়িতে ১৯৮৪ সালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা ম্যাজিস্ট্রেটের আদালত প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল, যা বর্তমানে স্থানান্তরিত হয়ে জমিদারের বাগান বাড়িতে পরিচালিত হচ্ছে।

জানা যায়, মানিকগঞ্জের শিবালয় থানাধীন বিনোদপুর ছিল বালিয়াটি জমিদারদের পূর্ব নিবাস। মহেশরাম সাহা নামে ছোট্ট এক কিশোর নিতান্তই ভাগ্যের অন্বেষণে সাটুরিয়া উপজেলার বালিয়াটি আসেন এবং জনৈক পানের ব্যবসায়ীর বাড়িতে চাকরি নেয়। পরবর্তীতে ওই বাড়ির মেয়ে বিয়ে করে শশুরের সঙ্গে ব্যবসা করে প্রথম শ্রেণীর ব্যবসায়ী হন। মহেশ রামের ছেলে ঘনেশ রাম লবণের ব্যবসা করে আরও উন্নতি লাভ করেন। ঘনেশরামের ঘরে গোবিন্দরামসহ চার ছেলে জন্ম গ্রহণ করে। গোবিন্দরাম বালিয়াটিতে বিয়ে করে এখানেই বসবাস শুরু করেন। গোবিন্দরামের চার ছেলে যথাক্রমে আনন্দরাম, দধিরাম, পন্ডিতরাম ও গোপালরাম। এই চার ভাই প্রথমে একসাথে এবং পরে পৃথক পৃথক ভাবে ব্যবসা শুরু করেন। উক্ত চার ভাই থেকেই বালিয়াটি গোলাবাড়ি, পূর্ব বাড়ি, পশ্চিমবাড়ি, মধ্যবাড়ি ও উত্তর বাড়ি নামে ৫টি জমিদার বাড়ির সৃষ্টি হয়।

আনুমানিক ১৭৯০ সালে চার ভাইয়ের মাধ্যমেই জমিদার বাড়ির গোড়াপত্তন হয়। ১৯৪৮ সালে সপরিবারে ভারত চলে যান জমিদাররা। এরপরেই পরিত্যাক্ত সম্পত্তি হিসেবে সরকার বাড়িটি অধিগ্রহণ করে নেয়। পরে ২০০৭ সালে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর থেকে নতুন করে সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয় ।

জমিদার বাবুরা বেশির ভাগ সময়ই রংমহলে কাটাতেন। রংমহলে তারা সুর, সরাব আর নর্তকীদের নৃত্যের ঝংকারে মগ্ন থাকতেন। বর্তমানে রংমহলের কক্ষটিতে শোভা পাচ্ছে জমিদারের ব্যবহার্য বিভিন্ন আসবাব পত্র। রংমহলে রাখা কাচের আয়না ও শ্বেত পাথরে দুটি গাভী খুব সহজেই সকলের দৃষ্টি কাড়ে।

বালিয়াটী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিন জানান বালিয়াটী সে সময়ে জমিদারদের নিয়ম কানুন ও আচরণের কথা। তাদের আমলে জুতা পায়ে আর ছাতা মাথায় নিয়ে যে কেউ জমিদার বাড়ির সামনে দিয়ে যেতে পারতো না। এতে নাকী বাবুদের অসম্মান হতো। এ নিয়ম অমান্য করলে তাকে শাস্তি পহাতে হতো।

দেশের খ্যাতিমান পরিচালকদের চলচ্চিত্র, নাটক, টেলিফিল্ম, প্রামান্ন চিত্র নির্মাণের শুটিং করতে প্রায়ই দেখা যায় এ বাড়িতে। বাদ যায়নি জনপ্রিয় নির্মাতা হানিফ সংকেত এর ইত্যাদিও। ইতিহাসের নিদর্শন হিসেবে ২০১১ সালে পরিচালক হানিফ সংকেত “ইত্যাদি”র সবটুকু চিত্রায়নই এ প্রাসাদের সামনে করেন। তার শুটিংয়ের আলোক সজ্জায় প্রাণ ফিরে পেয়েছিল নিঃসঙ্গ প্রাসাদটি। যেন জমিদার বাহাদুর আবার প্রাসাদে ফিরে এসেছেন! কালজয়ী ছবি বেহুলা লক্ষিন্দর, জীবন সিমান্তেসহ অসংখ্য চলচিত্রের শুটিং হয়েছে এ বাড়িতে। শুটিং করতে ঢাকার আগারগাঁও প্রত্নতত্ব বিভাগের অফিসে অনুমতি নেন পরিচালকরা। দেশ-বিদেশ থেকে বিভিন্ন পর্যটক বালিয়াটী জমিদার বাড়ি বেড়াতে আসেন। এক্ষেত্রে সরকারের প্রচুর রাজস্ব আয় হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email

খবরটি শেয়ার করুন....



Leave a Reply

Your email address will not be published.



বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন

করোনা ইনফো (কোভিড-১৯)

 

 

 

 

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:০৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৪৯ পূর্বাহ্ণ
  • ১৫:৩৫ অপরাহ্ণ
  • ১৭:১৪ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৩১ অপরাহ্ণ
  • ৬:২০ পূর্বাহ্ণ

জনপ্রিয় পুরাতন হিন্দি গান

জনপ্রিয় বাউল গান

[print_masonry_gallery_plus_lightbox]




জনপ্রিয় পুরাতন বাংলা গান

সর্বশেষ সংবাদ জানতে



আমরা জনতার সাথে......“আজকের দিগন্ত ডট কম”

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত “আজকের দিগন্ত ডট কম”।  অনলাইন নিউজ পোর্টালটি  বাংলাদেশ তথ্য মন্ত্রনালয়ে জাতীয় নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন।

Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Shares
x