রবিবার, ১৩ Jun ২০২১, ০৮:২০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তি....
“সরকারের দিক-নির্দেশনা মেনে চলি, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ করি।” অনলাইন নিউজ পোর্টাল “আজকের দিগন্ত ডট কম” এর পক্ষ থেকে আপনাকে জানাচ্ছি স্বাগতম , সর্বশেষ সংবাদ জানতে এখনই ভিজিট করুন “আজকের দিগন্ত ডট কম” (www.ajkerdiganta.com) । বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের জন্য পরিশ্রমী, মেধাবী এবং সাহসী প্রতিনিধি আবশ্যক, নিউজ ও সিভি পাঠানোর ঠিকানাঃ-- ajkerdiganta@gmail.com // “ধুমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, আসুন আমরা মাদক’কে না বলি”
সংবাদ শিরোনাম....
সহপাঠিদের আনন্দ ভ্রমণ “ ধামরাই হার্ডিঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ–৮৯তম ব্যাচ” ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের নিয়ে প্রিজম প্রকল্প এবং নাসিবের ৩টি কর্মশালা প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহবান— তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী গাজীপুরে অগ্নিকান্ডে ২০টি ঘর পুড়ে ছাঁই পাকুন্দিয়ায় প্রাণি সম্পদ প্রদর্শনীর উদ্ভোধন বিশ্ব পরিবেশ দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী বিশ্ব পরিবেশ দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী নরসিংদী থেকে উদ্ধার বণ্যপ্রাণী শ্রীপুরে সাফারি পার্কে চট্টগ্রামে শিল্পনীতি নিয়ে অংশীজন পরামর্শ কর্মশালা অনুষ্ঠিত গাজীপুরে ৬ লাখ ২২ হাজার শিশু ভিটামিন “এ” ক্যাপসুল পাবে

প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহবান— তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী

প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংসকারীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহবান— তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী

 

 

 

অনলাইন ডেস্কঃ ‘প্রকৃতি ও পরিবেশ পরিবেশ ধ্বংসকারীদে বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে সকল রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্ববান ’আজ বাংলাদেশ টেলিভিশন, চট্রগ্রাম কেন্দ্র আয়োজিত বিশ্ব পরিবেশ দিবস-২০২১ উপলক্ষ্যে আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ একথা বলেন।

আজ শনিবার (৫ জুন) বিশ্ব পরিবেশ দিবস-২০২১ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ড. হাছান মাহমুদ তাঁর বক্তৃতায় বলেন, পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তিন মাস ব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী চালু করেছেন। মুজিববর্ষের অঙ্গীকার করি, সোনার বাংলা সবুজ গড়ি এই স্লোগানকে সামনে নিয়ে বাংলাদেশে বিশ্ব পরিবেশ দিবস পালিত হচ্ছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৮১ সালে বাংলাদেশে ফিরে আসেন। ১৯৮৩ সাল থেকে কৃষকলীগ এর মাধ্যমে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী চালু করেছেন। প্রত্যেকে একটি করে বনজ, ভেষজ, ঔষদি, গাছ লাগান এটিই ছিল প্রধানমন্ত্রীর স্লোগান।

ড. হাছান মাহমুদ তাঁর বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশ ঘনবসতির দেশ । আজ থেকে ৩০ বছর পূর্বে লোকালয়ে এত গাছ ছিলনা। বর্তমানে লোকালয়ে গাছের ঘাটতি নেই। রাস্তার ধারে সামাজিক বনায়ন চলছে জনগণকে সাথে নিয়ে। এটির প্রবর্তন করেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। গত ১২ বছরে বনভূমির পরিমাণ না কমে বরং বেড়ে গিয়েছে। পূর্বে বনভূমি কমে ৮% হয়েছিল, বর্তমানে সেটি বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন মানুষ প্রকৃতির দাস। এই পরিবেশ বিনষ্ট হলে মানুষের বেচে থাকা দায়।

তিনি আরও বলেন, আজ থেকে ৬৫ মিলিয়ন বছর আগে ডাইনোসরসহ বিভিন্ন প্রানী বিলুপ্ত হয়ে যায় শুধু মাত্র পরিবেশ বিপর্যয়ের কারনে। পৃথীবীতে এখন বিলিয়ন প্রানী আছে। আজকের পৃথিবীতে মানুষ প্রকৃতিকে নিজের প্রয়োজনে ব্যাবহার করছে। বর্তমানে আমরা স্বাভাবিকভাবে অক্সিজেন নিতে পারছিনা। আমাদের শ্বাসতন্ত্র ঢেকে রাখতে হচ্ছে। আজকে মানুষ অনেক উন্নতি করছে। মনুষ্যবিহীন যান চাঁদে পাঠাচ্ছে। নেদারল্যান্ডের একটি কোম্পানি বলেছে দুই দশক পরে তারা মানুষকে চাঁদে পাঠাবে। গাড়ী আজ জিপিএস সিস্টেমে চলে। আমাদের অনেক উন্নতি হয়েছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, মানুষ সব কিছুকে নিজের প্রয়োজনে ব্যবহার করছে। এসবের কারনে আমরা বারেবারে বিপর্যয়ের মুখে পড়ছি। আজ পরিবেশ দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হল রিস্টোর অফ ইকোসিস্টেম। আজ থেকে ত্রিশ বছর আগে কর্ণফুলী নদীর যে ইকোসিস্টেম ছিল, তা আজ নেই। বুড়িগঙ্গা নদীর ইকোসিস্টেম অনেক আগেই নস্ট হয়ে গিয়েছে। ঢাকা শহরে দুই কোটি লোকের বাস। ঢাকা শহরের লোক যদি ভেবে নেয় আমি যেখানে সেখানে ময়লা ফেলব , আর সিটি কর্পোরেশনের সাত হাজার লোক তা পরিস্কার করে নিবে, এটা ভেবে নেওয়া ভুল হবে।

তিনি সবাইকে বিনীতভাবে একটি নিবেদন জানান যে, আমরা যেন প্রত্যেকেই তিনটি করে গাছ লাগাই। মানুষের কাছে আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে মানুষকে বেষ্ট প্র্যাকটিসগুলো শেখানো, জানানো। তিনি সকলকে পরিবেশ সংরক্ষণে ভূমিকা রাখতে আহ্ববান জানান। যারা প্রকৃতি ও পরিবেশ ধ্বংস করছে তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে বলে তিনি মনে করেন।

আলোচনা সভা শেষে বাংলাদেশ টেলিভিশন, চট্রগ্রাম কেন্দ্রের অভ্যন্তরে মন্ত্রী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী উদ্ধোধন করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের সভাপতি বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্রগ্রাম কেন্দ্রের জেনারেল ম্যানেজার নিতাই কুমার ভট্রাচার্য। এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ আবদুল আউয়াল সরকার, বন সংরক্ষক, চট্রগ্রাম বন অঞ্চল, মো. শফিকুল ইসলাম, বিভাগীয় বন কর্মকর্তা, চট্রগ্রাম দক্ষিণ বন বিভাগ, অনুপ খাস্তগীর, বার্তাবিভাগ, বিটিভিসহ চট্রগ্রামের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিক, গণমাধ্যমকর্মী, সরকারি কর্মকর্তাসহ বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ।

Print Friendly, PDF & Email

খবরটি শেয়ার করুন....



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

অনুসন্ধান



বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন

করোনা ইনফো (কোভিড-১৯)

 

 

 

 

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৪৬ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০১ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৩৭ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৪৯ অপরাহ্ণ
  • ২০:১৫ অপরাহ্ণ
  • ৫:১০ পূর্বাহ্ণ

ফটো গ্যালারি



জনপ্রিয় পুরাতন হিন্দি গান

জনপ্রিয় বাউল গান




জনপ্রিয় পুরাতন বাংলা গান

সর্বশেষ সংবাদ জানতে



আমরা জনতার সাথে......“আজকের দিগন্ত ডট কম”

© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত “আজকের দিগন্ত ডট কম”।  অনলাইন নিউজ পোর্টালটি  বাংলাদেশ তথ্য মন্ত্রনালয়ে জাতীয় নিবন্ধন প্রক্রিয়াধীন।

Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Shares
x